“বিশের দশকের হলিউড ছিল নান্দনিকতার আধার”: আলেক্সান্ডার পেইন-এর সাক্ষাৎকার

[আলেক্সান্ডার পেইন। আমেরিকান চিত্রনাট্যকার, প্রযোজক ও পরিচালক। আধুনিক আমেরিকান সিনেমার এক গুরুত্বপূর্ণ নাম। কমেডির মাধ্যমে গভীর জীবনবোধ আর আত্মিক সম্পর্কের খুঁটিনাটি ব্যাপারগুলো তুলে ধরতে ওস্তাদ এই মানুষটি চ্যাপলিন দ্বারা বিশেষভাবে প্রভাবিত। একই সাথে হিউমারাস ডায়লগ, অদ্ভূত চরিত্র নির্মাণ আর অসাধারণ চিত্রনাট্য এর মাধ্যমে দুর্দান্ত কয়েকটা সিনেমা বানিয়ে ফেলেছেন। About Schmidt (2002), Sideways (2004), The Descendants (2011), Nebraska (2013) তার নির্মিত সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা। UCLA Film School থেকে ১৯৯০ সালে থিয়েটার আর্টস এ MFA (Master of Fine Arts) তে স্নাতক, নেব্রাস্কার ওমাহায় জন্ম (১০ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১) নেওয়া এই ফিল্মমেকার দুইবার (Sideways, The Descendants) সেরা চিত্রনাট্য লেখক হিসেবে অস্কার জিতেছেন। Nebraska রিলিজের কিছুদিন পর গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি তার সিনেমা আর সিনেমার কিছু আনুষঙ্গিক বিষয় নিয়ে আলাপ করেছেন। ]

“আমি শুধুই নেব্রাস্কার একজন বাসিন্দা”: আলেক্সান্ডার পেইন

 

প্রশ্নঃ Nebraska আপনার নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র যার চিত্রনাট্য আপনি লেখেননি। কিছু বলুন।

পেইন: অনেক বছর আগে আমার Election সিনেমাটা যে দুইজন প্রযোজনা করেছিল, তারা আমাকে Nebraska-র চিত্রনাট্য দেখায় আর জিজ্ঞেস করে পরিচালক হিসেবে কে ভাল হবে ? আমি নিজের কথাই বলি ওদের। কিন্তু Sideways এর পরপরই আমি আরেকটা “রোড মুভি” বানাতে চাইনি। আর তাই আমি The Descendants এর কাজে হাত দিই।

প্রশ্নঃ আপনি নেব্রাস্কায় বড় হয়েছেন আর Nebraska হচ্ছে নেব্রাস্কায় শ্যুট করা আপনার চতুর্থ সিনেমা। এটা কি ‘যা জানো তাই তৈরি কর’ টাইপের কোন বিষয় ?

পেইন: আমি নেব্রাস্কায় শ্যুট করতে পছন্দ করি। এতে হয় কি, যা জানি এবং যা জানি না দুটোই পাওয়া যায়। ওখানকার গ্রামগুলো আমি ভাল করে চিনি না। আমেরিকানরা নেব্রাস্কা কে চেনে গাড়িতে যেতে যেতে কিংবা প্লেনে বসে থেকে। তারা অনেক বিষয়ই জানে না। যারা গাড়িতে যেতে যেতে দেখে, তাদের ধারণা নেব্রাস্কা শুধুই সমতল একটা জায়গা। ওমাহা, আমি যেখানে বড় হয়েছি, সেটা হচ্ছে নেব্রাস্কার প্যারিস।

প্রশ্নঃ নেব্রাস্কাকে গুরুত্বের সাথে আমেরিকার মানচিত্রে তুলে আনা কি আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ ?

পেইন: না, আমি চেম্বার অফ কমার্সের কেউ না। কেউ কি ভুলেও ঊডি অ্যালেন কে জিজ্ঞেস করে, আপনি নিউ ইয়র্কে কেন শ্যুট করেন ? আমি শুধুই নেব্রাস্কার একজন বাসিন্দা। আমি এখনও প্রায় অর্ধেকটা সময় নেব্রাস্কায় থাকি। আর ওখানে শ্যুট করার মধ্যে আলাদা একটা আনন্দ আছে।

প্রশ্নঃ ছবিটি (Nebraska) এক পিতা-পুত্রের প্রাইজ মানি তুলে আনার জন্য মন্টানা থেকে নেব্রাস্কায় ভ্রমণের গল্প……

পেইন: অভিনেতাদের প্রতি আমার নির্দেশনা ছিল এই বিষয়টা মনে রাখার জন্য যে, আমাদের সবারই বৃদ্ধ বাবা-মা আছে। যারা নানা কারণে আমাদের বিরক্ত করে তুলতে পারেন। কিন্তু আমাদেরই তাদের যত্ন নিতে হবে। বিশেষত একজন দায়িত্ববান ছেলে হিসেবে, যে নিজেকে ভাল করে চেনে।

নেব্রাস্কা (২০১৩)

প্রশ্নঃ আমি খেয়াল করেছি আপনার সিনেমার চরিত্রগুলো অদ্ভূত ভাবে চলাফেরা করে। জ্যাক নিকলসন (About Schmidt) ঘষে ঘষে চলে, জর্জ ক্লুনি (The Descendants) বোকার মত দৌড়ায়, আর ব্রুস ডার্ন (Nebraska) তো একেবারে কসাইয়ের মত। চরিত্রের হাঁটার ধরনে কি আপনি বিশেষভাবে নজর দেন ?

পেইন: হ্যাঁ, দিই। এর কারণ হতে পারে আমার সিনেমা গুলো সংলাপ নির্ভর। আমি কিন্তু সবসময়ই নির্বাক কমেডি ছবি বানাতে চেয়েছি। তাই চ্যাপলিনের মতই আমি আমার চরিত্রগুলোকে পুরো ফ্রেমে জায়গা দিতে চাই। আমি বিশেষ অঙ্গভঙ্গিপূর্ণ আর হেঁটে চলা চরিত্রের সিনেমা পছন্দ করি।

প্রশ্নঃ নির্বাক যুগে থেকে ছবি বানাতে পারলে কি আপনার ভাল লাগত ?

পেইন: আর্থোস্কোপিক সার্জারি, ক্যান্সারের অষুধ এবং এই ধরনের আধুনিক চিকিৎসার ব্যাপারগুলিই কেবল আমাকে অতীতে বাস করার স্বপ্ন দেখা থেকে বিরত রাখে। দশের দশকের শেষটায় কিংবা বিশের দশকের হলিউডের নির্মাতা হতে পারলে, আহা ! খুবই ভাল হত। সেই সময়টা ছিল নান্দনিকতার আধার। ঐরকম আর দেখিনা এখন।

প্রশ্নঃ Nebraska কে কি প্রথম থেকেই সাদা-কালোয় নির্মাণ করতে চেয়েছিলেন ?

পেইন: হ্যাঁ।

প্রশ্নঃ বিষয়টা স্টুডিও কিভাবে নিয়েছিল ?

পেইন: তারা পুরোপুরি সাদা-কালোর বিপক্ষে ছিল। আমি আর আমার চিত্রগ্রাহক বাদে সবাই। তারা এই প্রজেক্ট থেকে প্রায় সরে গিয়েছিল। আর এর বাজেট ছিল একেবারেই নগণ্য।

প্রশ্নঃ এই ফরম্যাটের (সাদা-কালো) কোন বিষয়টা আপনাকে টানে ?

পেইন: যেসব ছবি আমি দেখি, তার নব্বই ভাগই সাদা-কালো। ব্যাবসায়িক স্বার্থেই এই ফরম্যাট সিনেমা থেকে বিদায় নিয়েছে। কিন্তু নান্দনিক চিত্রগ্রহণ বাদ যায়নি। অন্তত একটি সাদা-কালো সিনেমা ছাড়া আমার ফিল্মের ক্যারিয়ার হতেই পারে না। আমার প্রশ্ন হচ্ছে, Manhattan, Raging Bull, Schindler’s List এসবও তো সাদা-কালো, মানুষ কি দেখেনি সিনেমাগুলো ?

প্রশ্নঃ আপনার সিনেমায় Road Trip ব্যাপারটা ফিরে ফিরে আসে। জীবন বদলে দেয়া কোন Road Trip এ গেছেন আপনি ?

পেইন: জীবন বদলে দেয়া-টেয়া এসব আমি বুঝিনা। কিন্তু কয়েক সপ্তাহ আগে আমি লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ওমাহায় ভ্রমণ করেছি। তিন দিনে। সময় থাকলে আমি পুরো সপ্তাহ জুড়ে ভ্রমণ করতাম। কিন্তু আমার ডায়াবেটিক বিড়ালটার জন্য তাড়াতাড়ি করতে হয়েছে।

প্রশ্নঃ আপনার কোন সিনেমা নিয়ে বেশি অভিনন্দন পেয়েছেন ?

পেইন: Election.

প্রশ্নঃ Sideways এর চাইতেও বেশি ?

পেইন: হ্যাঁ। ফিল্মের লোকজনের কাছ থেকে সবসময়ই Election এর ব্যাপারে বেশি অভিনন্দন পেয়েছি। আমার মা Nebraska দেখার পর বলল, ভাল, তবে Election এর মত আরেকটা বানাও না কেন ?

প্রশ্নঃ সিনেমা বানানোর তাড়না কি অল্পবয়স থেকেই ?

পেইন: ৫ বছর বয়স থেকেই আমি সিনেমার পোকা ছিলাম। সিনেমা নিয়ে সর্বক্ষণ পড়ে থাকার একটা তাড়না অনুভব করতাম ছোটবেলা থেকেই। একটু বড় হয়ে সিনেমা বানানোর ইচ্ছাটা প্রবল হয়।

দ্য ডিসেন্ড্যান্টস (২০১১)

 

প্রশ্নঃ কি কি সিনেমা বা কোন কোন ফরম্যাটের সিনেমা দেখে অভিজ্ঞতা বাড়িয়েছিলেন ?

পেইন: চ্যাপলিনের Modern Times. এরপর বুনুয়েল থেকে প্রেরণা পেয়েছি। এরও পরে, কুরোসাওয়া। Seven Samurai আমি সবচেয়ে বেশিবার দেখেছি। এছাড়াও The Good, the Bad and the Ugly, The Godfather II, 8½. ওমাহা থেকে আসা একজন গ্রীক অভিবাসীর নাতি হিসেবে ফিল্মমেকার হবার ইচ্ছাটা একটা অলীক স্বপ্নই ছিল। তবে আমি ইচ্ছাটা ঝেড়ে ফেলে দিই নি। এই জগতে আমার আসতেই হত। কলেজ শেষ করার পর ফিল্ম স্কুলে অ্যাপ্লাই করি। যখন সুযোগ পেয়ে যাই তখন আমি জানতাম আমাকে চেষ্টা করতে হবে। এমনকি যদি মুখ থুবড়েও পড়ি। সিনেমার প্রতি অগাধ ভালবাসাটা আমি ভালভাবেই টের পেতাম। আর বুঝতাম আমার সামর্থ্য আছে সিনেমা বানানোর। আমি কমেডি বানিয়েছি, এই ঝুকি কিন্তু সবাই নেয় না।

প্রশ্নঃ আমার মনে হয়েছিল আপনি পরিচালক হিসেবে একই অভিনেতাকে দিয়ে বারবার কাজ করাতে ভালবাসেন। কিন্তু তা নয় কেন ?

পেইন: এরকম করতে পারলে তো ভালই হয়। কিন্তু এই ব্যাপারটা হয়ে উঠে না। সবই চিত্রনাট্যের উপর নির্ভর করে।

প্রশ্নঃ আপনি চরিত্রের অভিনেতা নির্বাচনে খুব কঠোর। জর্জ ক্লুনি Sideways এর ‘জ্যাক’ চরিত্রটি করতে চেয়েছিল। কিন্তু আপনি তাকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন।

পেইন: ওই যে বললাম, সবই চিত্রনাট্যের উপর নির্ভর করে। আমি কম খরচে দুর্দান্ত এবং ঠিকঠাক ‘কাস্টিং’ এর পক্ষপাতি।

সাইডওয়েইজ (২০০৪)

 

প্রশ্নঃ Sideways এর পল জিয়ামাত্তির চরিত্রটি Merlot ( বিশেষভাবে উৎপাদিত আঙ্গুর থেকে তৈরি করা ওয়াইন) সম্পর্কে অনেক কুৎসিত কথাবার্তা বলে। সিনেমাটা রিলিজের পর আমেরিকায় ওয়াইনের বিক্রি ২% কমে যায়। ওয়াইন প্রস্ততকারীরা কোন বাজে মন্তব্য করেনি আপনাকে ?

পেইন: এই বিষয়ে একমাত্র ঘটনাটা খুবই মজার। Sideways রিলিজের এক বছরের মাথায় Napa থেকে Trefethen নামের এক ওয়াইন প্রস্ততকারী আমাকে ওয়াইনের বোতল সহ একটি চিঠি পাঠায়। চিঠিতে লেখা, “Dear Alexander Payne, I bet Miles and Jack never tried my merlot. Sincerely, Janet Trefethen.”

আমি Merlot পছন্দ করি। Château Pétrus হচ্ছে অন্যতম শ্রেষ্ঠ একটি ওয়াইন। এটিও কিন্তু Merlot. ওসব আসলে মজা করে বলিয়েছি ‘মাইলস’ চরিত্রটি দিয়ে।

প্রশ্নঃ নিজের সিনেমার রিভিউ পড়েন ?

পেইন: হ্যাঁ, পড়ি। তবে স্মার্ট গুলো।

প্রশ্নঃ ক্রিটিসিজম কে আপনি কিভাবে দেখেন ?

পেইন: রজার এবার্ট একটা ভাল কথা বলেছে, “ফিল্ম ক্রিটিক হচ্ছেন তিনি, যিনি একজন ফিল্ম স্নব কে একটি নির্দিষ্ট ‘জনপ্রিয়’ সিনেমা দেখতে বলেন, আর সিনেমার একজন নিয়মিত দর্শককে নির্দিষ্ট ‘কম জনপ্রিয়’ সিনেমা দেখতে অনুপ্রাণিত করেন।’’ ভাল ক্রিটিকরা দর্শকদের সিনেমার প্রতি অনুরাগী করে তোলে। আমি স্বজ্ঞানে কাজ করি, তাই অন্তঃদৃষ্টিকে আড়াল করার জন্য আর নিজেকে একটু সজাগ রাখার জন্য ক্রিটিসিজমগুলো মাথায় রাখতে হয়। এমন নয় যে আমাকে তা গ্রহণ করতেই হবে, কিন্তু একটা ভাল চিন্তাধারা এবং বোধ যে কোন জায়গা থেকে পাওয়া যেতে পারে।

প্রশ্নঃ কাজ থেকে ছুটি নেবার সুযোগ থাকে বা পান ?

পেইন: হ্যাঁ, সুযোগ থাকে। এই গ্রীষ্মে ছয় সপ্তাহের এক দারুণ ছুটি কাটালাম। গত কয়েক বছরের মধ্যে আমার সত্যিকারের গ্রীষ্মের ছুটি। ইউরোপজুড়ে ঘুরে বেড়িয়েছি। কিন্তু সবসময় মাথায় সিনেমার চিন্তা কাজ করেছে। অবশ্য চিন্তা না করে থাকাটাই কঠিন।

ফেইসবুক কমেন্ট

আরও দেখেন

ট্রেভর নোয়ার স্মৃতিকথা | পর্ব ১...   মুখবন্ধঃ ইমোরালিটি অ্যাক্ট, ১৯২৭ (Immorality act, 1927) “ইউরোপীয় ও স্থানীয় অধিবাসী এবং অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীদের মধ্যে অবৈধ যৌন সম্পর্ক নিষেধ...
No Comments Yet

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: