তানভীর মাহমুদ

না পড়েই কিভাবে বই নিয়া কথা বলবেন?

একজন তুখোড় পড়ুয়ার পক্ষেও একজীবনে দুনিয়ার ভালো বইগুলির একটা ভগ্নাংশও পড়া সম্ভব না অথচ বইপত্র নিয়া কথাবার্তাও বলা লাগে। তাছাড়া, বই পড়ারে সমাজ, যেভাবে ‘ভালো’ ‘মহৎ’ বলে ব্যাপক ওয়ারশিপ করে, আসলে এমনকি লিটারেরি এলিটরা বেশিরভাগ সময়ই বই পড়ে না। না পড়েই কথা বলে। অতএব নন-রিডার হওয়া জরুরি। কী দরকার জয়েস ও প্রুস্ত পড়ার, যদি না পড়েই বা অন্যের লেখা পড়েই এদের বিষয়ে কমেন্ট করতে পারেন? শেখা দরকার কিভাবে বই না পড়েই বই বিষয়ে কমেন্ট করা যায়।

মার্শেল দ্যুশামের ফাউন্টেইন: হোয়াট ইজ আর্ট এ্যান্ড হোয়াট ইজন্ট

১৯১৭ সালে শিল্প আর দর্শনের জগতে একটা গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ঘটে। মার্সেল দ্যুশাম নিউইয়র্কের আলফ্রেড স্টিগলিটজ স্টুডিওতে তার শিল্পকর্ম ‘ফাউন্টেইন’ এর উন্মোচন ঘটান, যা ছিল ‘আর মাট’ স্বাক্ষরিত একটা সাধারণ চিনামাটির ইউরিনাল মাত্র। ‘ফাউন্টেইন’ ছিল এক কথায় কুখ্যাত, এমনকি আভাঁ গার্দ শিল্পিদের কাছেও। তবুও এটা বিশ শতকের সবচে আলোচিত একটি শিল্পকর্মে পরিণত হয়।

error: