fbpx

অনুবাদ

অন দ্য ফেনমেনন অফ বুলশিট জবস। ডেভিড গ্রেবার

জন মেইনার্ড কেইন্স ১৯৩০ সালে প্রযুক্তির এমন উৎকর্ষের ব্যাপারে ভবিষ্যতবাণী  করেছিলেন যে শতাব্দীর শেষ দিকে…

দিস ইজ ওয়াটার। ডেভিড ফস্টার ওয়ালেস

    [ ২০০৫ সালে  ক্যানিয়ন কলেজ সমাবর্তনে বক্তৃতা দিছিলেন মার্কিন সাহিত্যের  একজন  মায়েস্ত্রো ডেভিড…

ইতালো ক্যালভিনোর ‘অদৃশ্য শহর’- পর্ব ২

  ‘অন্য অন্য রাজদূতেরা আমারে দুর্ভিক্ষ, চাঁদাবাজি, নানামুখী ষড়যন্ত্র ইত্যাদি নিয়া সতর্ক করে; অথবা, নীলকান্তমণির…

শহীদুল জহির-এর অনুবাদে বোর্হেসের গল্প

[ অনেক লেখকই লেখকজীবনের শুরুর দিকে হাত মকশো করতে অনুবাদ করেন। বিশ্বসাহিত্যে অনেক নজির পাওয়া…

ইতালো ক্যালভিনোর ‘অদৃশ্য শহর’ – পর্ব ১

[ইতালো কালভিনোর বিখ্যাত উপন্যাস ‘ইনভিজিবল সিটিজ’ আগে অনুবাদ বাংলায় হইছে। জি এইচ হাবীব করছেন ‘অদৃশ্য…

না পড়েই কিভাবে বই নিয়া কথা বলবেন?

একজন তুখোড় পড়ুয়ার পক্ষেও একজীবনে দুনিয়ার ভালো বইগুলির একটা ভগ্নাংশও পড়া সম্ভব না অথচ বইপত্র নিয়া কথাবার্তাও বলা লাগে। তাছাড়া, বই পড়ারে সমাজ, যেভাবে ‘ভালো’ ‘মহৎ’ বলে ব্যাপক ওয়ারশিপ করে, আসলে এমনকি লিটারেরি এলিটরা বেশিরভাগ সময়ই বই পড়ে না। না পড়েই কথা বলে। অতএব নন-রিডার হওয়া জরুরি। কী দরকার জয়েস ও প্রুস্ত পড়ার, যদি না পড়েই বা অন্যের লেখা পড়েই এদের বিষয়ে কমেন্ট করতে পারেন? শেখা দরকার কিভাবে বই না পড়েই বই বিষয়ে কমেন্ট করা যায়।

পশ্চিমা দর্শন কেন বর্ণবাদী?

তথাকথিত পশ্চিমে মূলধারার দর্শন সংকীর্ণমনা, কল্পনাশক্তিহীন, এমনকি বিদেশীদের সম্পর্কে অহেতুক ভীতসন্ত্রস্ত। পশ্চিমের কেতাবি দর্শন চীন, ভারত এবং আফ্রিকার চিন্তাধারাকে অগ্রাহ্য করে, অবজ্ঞা করে।

ঋত্বিক ঘটক: সিনামা পুনরাবিষ্কার

ঘটক কখনো জাক তাতির মাস্টারপিস ‘মঁশিয়ে উলো’স হলিডে’ (১৯৫৩) দেখছিলো কিনা আমার জানা নাই, কিন্তু যতবার ঘটকের সেকেন্ড ফিচার অযান্ত্রিক দেখি, তাতির সিনামার কথা মনে পড়ে যায়।

error: